হরপ্পা সভ্যতার রাজনৈতিক জীবন কেমন ছিল?

হরপ্পা বা সিন্ধুর নগরগুলিতে কী ধরনের শাসনব্যবস্থা প্রচলিত ছিল সে সম্পর্কে কোনও প্রত্যক্ষ প্রমাণ নেই। এ ব্যাপারে পণ্ডিতরা নানা মতামত প্রকাশ করেছেন।

বিরাট এলাকা জুড়ে একই ধরনের ঘর-বাড়ি, রাস্তাঘাট, ওজন-মাপ দেখে পণ্ডিতরা মনে করেন যে, এখানে একটি কেন্দ্রীভূত শাসনব্যবস্থা প্রচলিত ছিল। Dr. S. K. Saraswati বলেন যে, হরপ্পার নগরগুলির সংগঠন দেখে মনে হয় যে, এখানে একটি কেন্দ্রীভূত প্রশাসন প্রচলিত ছিল এবং এই প্রশাসনই জনগণের জীবন নিয়ন্ত্রণ করত।

ডঃ কোশাম্বী -র মতে, রাজতন্ত্র বা প্রজাতন্ত্র — যাই হােক না কেন, এখানে একটি কেন্দ্রীয় শক্তি ছিল, নতুবা এত উন্নত ও পরিকল্পিত নাগরিক সভ্যতার বিকাশ এখানে সম্ভব হত না। অনেকের মতে বণিকদের দ্বারা পরিচালিত একটি প্রজাতান্ত্রিক শাসন এখানে প্রতিষ্ঠিত ছিল।

স্যার মর্টিমার হুইলার এর মতে, সিন্ধু অঞ্চল ছিল একটি সাম্রাজ্য এবং এখানে একটি ধর্মাশ্রয়ী শাসন ব্যবস্থা প্রচলিত ছিল। এর কেন্দ্রে ছিলেন একজন পুরােহিত-রাজা (Priest-king)। তিনি দৈব অধিকারের জোরে শাসনকার্য পরিচালনা করতেন।

H. D. Sankhalia -র মতে, এখানকার কেন্দ্রীয় শাসন ছিল একজন দৃঢ়, উদারনৈতিক স্বৈরশাসকের হাতে।